যেসব কারণে দূষিত হয় রক্ত, বাড়ে মৃত্যুর ঝুঁকি !

রক্তের প্রবাহ যতো সুষ্ঠুভাবে হয় আমাদের শারীরিক ও মানসিক স্বাস্থ্যও ততো ভালো থাকে। চিকিৎসা বিজ্ঞানীদের মতে, কোনো ব্যক্তির রক্তের স্বাস্থ্য যেমন, তার স্বাস্থ্যও ঠিক তেমন হবে। রক্ত দূষিত হয়ে পড়লে আমাদের স্বাস্থ্যের বিপর্যয় অনিবার্য। এর ফলে সামান্য অসুস্থতা থেকে শুরু করে হৃদরোগ, এমনকি ক্যান্সার পর্যন্ত হতে পারে।

তাহলে রক্ত দূষণের প্রধান কারণগুলো সম্পর্কে জেনে নেওয়া যাক:

অস্বাস্থ্যকর খাবার: অস্বাস্থ্যকর খাবার খাওয়ার ফলে অতিরিক্ত কোলেস্টেরল, ফ্যাট ও অন্যান্য দূষিত পদার্থ রক্তস্রোতের সঙ্গে মিশে গিয়ে ধীরে ধীরে ধমনীর গায়ে জমা হতে থাকে। আবার রক্তস্রোতে উপস্থিত অতিরিক্ত ফ্যাটে রক্ত কণিকা ও প্লাটিলেটগুলো জমাট বেঁধে যায়। ফলে রক্তের ঘনত্ব বেড়ে গিয়ে তার অক্সিজেন পরিবহনের ক্ষমতা কমে যায়।

থাইরয়েডের ত্রুটি: থাইরয়েড গ্ল্যাণ্ডের কর্মক্ষমতা নিম্নমানের হলে স্নেহ জাতীয় পদার্থ ঠিকমতো হজম হয় না। ফলে রক্তে কোলেস্টেরল ও ফ্যাটের মাত্রা বেড়ে যায়। থাইরয়েডের কর্মক্ষমতা নিম্নমানের হয় খাবারের আয়োডিন বা ভিটামিন বি ১-এর অভাবে। অতিরিক্ত শর্করা জাতীয় খাবার খেলেও ভিটামিন বি ১-এর অভাব হতে পারে।

ধূমপান: ধূমপানের ফলে বিষাক্ত কার্বন মনো অক্সাইড গ্যাস রক্তে মিশে রক্তে অক্সিজেনের ভারসাম্য নষ্ট করে। তাছাড়া, রক্ত চলাচলে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালনকারী ভিটামিন সি ধূমপানের কারণে নষ্ট হয়। নিকোটিনের প্রভাবে স্নায়ুতন্ত্র ক্ষতিগ্রস্ত হয় এবং ধমনীগুলো সংকুচিত হয়ে পড়ে।

মদ্যপান: মদ্যপানের ফলেও রক্তকণিকাগুলো জমাট বেঁধে যায়, রক্তে ফ্যাটের মাত্রা বেড়ে যায়, নষ্ট হয় বহু প্রয়োজনীয় পরিপোষক। সেই সঙ্গে কয়েকটি এনজাইম নিষ্ক্রিয় হয়ে পড়ার ফলে শরীরে অক্সিজেন সরবরাহে ঘাটতি দেখা দেয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top
%d bloggers like this: